বিনোদন

অভিনেতা যশের সাথে পরকীয়ার সম্পর্কের জন্যই নুসরত ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন!

টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরত জাহান। অভিনয় জগৎ থেকে পারি দেন রাজনীতিতে। বছর বিয়ে করেন বড় ব্যাবসায়ী নিখিল জৈনকে। তারপর ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্কের অবনতি হতে শুরু করে। তার মধ্যেই আবার চলতি বছরে নুসরত মাঝখানে নিয়ে আসেন যশ দাশগুপ্তরকে। তারপর থেকেই শুরু হয়ে যায় সম্পর্কের ত্রিকোণ সমীকরণ।

যশ ও নুসরতের সম্পর্ক নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর জল্পনা শুরু হয়ে গেছিল তখন তারা তাদের সম্পর্ককে অস্বীকার করেছিলেন কিন্তু পরবর্তীতে তা প্রকাশ্যে আসে। নুসরতের সাথে যশের পরিচিয় হয়েছিল ২০১৭ সালে বাংলা সিনেমা ‘ওয়ান’-এর সেটে। অনেকের মতে, ২০২০ সালে ‘sos কোলকাতা’ ফিল্মের মাধ্যমে যশ ও নুসরতের ঘনিষ্ঠতা তৈরী হয়েছিল। কিন্তু আসলে তাদের সম্পর্ক তৈরী হয়েছিল অনেক আগে থেকেই। যার জন্যই নুসরত গত বছর গোড়ার দিকে ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। কিন্তু তার স্বামী নিখিল তাকে সঠিক সময়ে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ায় তার প্রাণ বেসিভে যায়। পরে নুসরত মিডিয়ায় একটি হাস্যকর বয়ানে বলেন, তিনি ভুল করে বেশি ঘুমের ওষুধ খেয়ে ফেলেছিলেন।

টলিউডের হট অভিনেত্রীদের মধ্যে এদকজন। কিন্তু নানা সময় নানা বিষয় নিয়ে কটাক্ষের মুখোমুখি হতে হয়েছে তাকে। বর্তমানে সাংসদ-অভিনেত্রী চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন। নতুন বছর শুরু হতেই অভিনেত্রীর জীবনে ঝড় উঠে যায়। কিন্তু সেই ঝড় মাথায় নিয়েই পারি দিয়েছিলেন রাজস্থানে। অবশ্য রাজস্থানে তিনি এক ছিলেন যান তার সঙ্গী হিসেবে ছিলেন যীশু দাসগুপ্ত। এরকমই অনুমান কিছু মানুষদের। তবে কখনো নিজের দাম্প্যত্য জীবন তো কখনো রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে বারবার খবরের শিরোনামে এসেছেন তিনি।

এদিকে নুসরাতকে ভালোবেসে পরিবারের বিরুদ্ধে গিয়ে বিয়ে করেন নিখিল। খুব বড় যেকজন শিল্পপতি তিনি। নিজের সমস্ত ইমেজ ভেঙে তার সাথে নানারকম মেজাজে মেতে ওঠেন নিখিল। নুসরতের কথা মতো, প্রতিটি ইভেন্টে নুসরতের সঙ্গে যেতেন তিনি। নুসরতকে খুশি রাখার সমস্ত চেষ্টা করেছেন নিখিল। নুসরতের ফিল্মি কেরিয়ারকে স্মরণীয় করে রাখতে নিখিল তাঁকে একটি বিশেষ শাড়ি উপহার দিয়েছিলেন যাতে এখনও অবধি নুসরতের ফিল্মে অভিনীত চরিত্রগুলির নাম খোদাই করা ছিল। পাশাপাশি এতটাই নূরাতকে ভালোবাসতেন নিখিল যে যশ ও নুসরতের অবৈধ সম্পর্ক সামনে আসতে দেননি নিখিল। কিন্তু এতকিছু করে তারপরেও বাঁচাতে পারেননি সম্পর্ক।

Related Articles

Back to top button