প্রচ্ছদ দৈনিক খবর

যে ৫টি “ভুল” আপনার সঙ্গীকে ঠেলে দিতে পারে প’রকীয়ার দিকে

7

অনেক সময় আপনার সঙ্গীর প’রকী’য়ার জন্য দায়ী হতে পারেন আপনি নিজেই।না জে’নেই নিজে’র স’স্পর্কের সর্বনাশ ডেকে আনে অনেকে। নিজে’র কিছু স্বভাবের কারণে ধীরে ধীরে সঙ্গীর থেকে মন উঠে যায়।

ফলে ভালোবাসার মানুষটি জড়িয়ে প’ড়ে অ’নৈতিক স’স্পর্কে। আসুন জে’নে নেয়া যাক ৫টি স্বভাব স’স্পর্কে যেগুলো আপনার সঙ্গীকে ঠেলে দিতে পারে প’রকী’য়ার দিকে।শারি*রীক মি*লনে অনীহা : বৈবাহিক স’স্পর্কের সুখ শান্তি অনেকাংশেই নির্ভর করে যৌ*ন জীবনের সুখ শান্তির ওপরে।স্বামী/স্ত্রী’র শা*রীরিক মি*লনে আগ্রহ কম থাকলে কিংবা আগ্রহ হারিয়ে ফেললে সঙ্গী প’রকী’য়ায় জড়িয়ে প’ড়ে অনেক সময়।

এছাড়াও শা*রীরিক মি*লনে অ*ক্ষ’মতার কারনেও অনেক সময় সঙ্গী প’রকী’য়ায় জড়িয়ে প’ড়ে।সঙ্গীর প্রতি ভালোবাসা না দেখানো : অনেকেই ভাবেন বিয়ে করলে আবার ভালোবাসা দেখানোর কি আছে?ভালোবাসা দেখায় তো প্রে’মিক প্রে’মিকারা। কিন্তু যারা মনে এ ধারণা পোষণ করেন তাদের সঙ্গীর প’রকী’য়ায় জড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।কারণ বিয়ের পরেও সারাজীবনই সঙ্গীর প্রতি ভালোবাসা দেখানো উচিত।

প্রতিদিনই মুখে বলা উচিত আপনার সঙ্গীকে আপনি কতটুকু ভালোবাসেন।এছাড়াও ছোট খাটো উপহার দিয়ে মাঝে মাঝে ভালোবাসা প্র’কাশ করুন। এতে স’স্পর্কের উ’ষ্ণ তা বজায় থাকবে।সঙ্গীর কাছে নিজেকে আকর্ষনীয় দেখনোর চেষ্টা না করা : প্রে’ম করার সময় কিংবা বিয়ের পর প্রথম প্রথম সঙ্গীর কাছে নিজেকে আকর্ষনীয় দেখানোর চেষ্টা তো সবাই করে।

কিন্তু ধীরে ধীরে এই আগ্রহ অনেকটাই কমে যায় অনেকের। সময়ের সাথে সাথে সঙ্গীর সামনে নিজেকে গুছিয়ে রাখার চেষ্টা একেবারেই কমিয়ে দেয় কেউ কেউ।ফলে সঙ্গীর প্রতি কোনো আকর্ষনবোধ থাকে না এবংঅনেকে প’রকী’য়ায় জড়িয়ে প’ড়ে নতুন আকর্ষনের খোজে।তাই সঙ্গীর কাছে নিজেকে চিরকালই সুন্দর ও আক’র্ষণীয় রাখার চেষ্টা করুন।নিজে’র ওজন নিয়ন্ত্রণ করুন এবং ত্বকের যত্ন নিন সবসময়। এছাড়াও সুন্দর পোশাক পরুন এবং সুগন্ধি ব্যবহার করুন সবসময়।

নতুনত্ব না থাকা : প্রতিদিন একই রুটিনে ঘুম থেকে ওঠা, খাওয়া, ক’র্মস্থলে যাওয়া এবং আবার ঘুমিয়ে পড়ার কারণে অনেকের কাছেই জীবনকে একঘেয়ে মনে হয়।

জীবনের এক ঘেয়েমীর কারণে অনেক সময় সঙ্গী প’রকী’য়ায় জড়িয়ে প’ড়ে নতুনত্বের স্বাদ খোঁ’জার জন্য। বিবাহিত জীবনটা যাতে একঘেয়ে না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখু’ন।দুজন মিলে গল্প করুন, বেড়াতে যান, নতুন কিছু শিখু’ন কিংবা ব’ন্ধুদের দিয়ে আড্ডা দিন নিয়মিত। কোনো ভাবেই নিজেদের জীবনটাতে ‘একঘেয়েমি’ প্রবেশ ক’রতে দিবেন না।

অ’তিরি’ক্ত স’ন্দে’হ করা : অনেকেই নিজে’র সঙ্গীকে অ’তিরি’ক্ত স’ন্দে’হ করে। স’স্পর্কের শুরু থেকেই অ’তিরি’ক্ত স’ন্দে’হ করে সঙ্গীর মনটা বিষিয়ে তোলে অনেকেই।এই অভ্যাস থাকলে তা ত্যা’গ করার চেষ্টা করা জরুরী। কারণ এক্ষেত্রে অনেক সময় জেদের বশে নিজেকে প’রকী’য়ায় জড়িয়ে ফে’লে সঙ্গী।