যেনে নিন লেবু ছাড়া আর কোন কোন খাবারে আছে ভিটামিন-সি

যেনে নিন লেবু ছাড়া আর কোন কোন খাবারে আছে ভিটামিন-সি
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

ভিটামিন-সি বলতে প্রথমেই আমরা বুঝি লেবু। কিন্তু লেবু ছাড়াও মোটামুটি সব ফলেই কম বেশি ভিটামিন-সি থাকে। এগুলির বেশিরভাগই রান্না না করেই খেতে হয়। পাতি লেবু বা কাগজি লেবু ও জামির লেবু, গোঁড়া লেবুর রস কাঁচা যেমন খাওয়া যায়, তেমনই নানা প্রকার রান্নার পদে ব্যবহার করা হয়।

তবে বেশি তাপমাত্রায় ভিটামিন সি নষ্ট হয়ে যায়। কমলালেবু, মুসাম্বি, মাল্টা লেবু, বাতাবি লেবু প্রভৃতি পাকলে খেতে হয়। পাতি, কাগজি, গোঁড়া কিংবা গন্ধরাজ লেবুর রস আমরা ভাতের পাতে খেয়ে অভ্যস্ত। তাতে ভিটামিন সি’র গুণ বজায় থাকে। তবে চায়ের সঙ্গে লেবুর রস খেলে চা ও লেবুর গুণগত মান নষ্ট হয়। না খাওয়াই সব থেকে ভালো।

 যেসব পাকা ফলে ভিটামিন সি কমবেশি থাকে এবং রান্না না করেই খেতে হয় সেগুলি হল— আম, জাম, কাঁঠাল, বেল, পেয়ারা, পেঁপে, আতা, লিচু, কুল, আনারস, আপেল, বেদানা, আঙুর, খেজুর, কিসমিস, চেরি, কাজুবাদাম, আলুবোখারা প্রভৃতি।

আরও পড়ুন:  লবণ, গোলমরিচ ও লেবু দূর করবে ১০টি স্বাস্থ্য সমস্যা

 ডাব ও নারকেলেও ভিটামিন সি থাকে। তবে নারকেল দিয়ে পাক করা কোনও তরকারি বা মিষ্টান্নতে কিংবা সাধের নারকেল নাড়ুতে ভিটামিন সি না থাকারই কথা। কয়েকটি অল্পপরিচিত ফল যেমন ড্রাগন ফ্রুট, কিউই, ক্র্যান বেরি, পিচ প্রভৃতিতেও ভিটামিন সি থাকে। কাঁচা আম ও পাকা আনারসেও থাকে ভিটামিন সি।

 কতকগুলি শাকসব্জিতে ভিটামিন সি থাকলেও উচ্চ তাপমাত্রায় রান্না করলে ভিটামিন নষ্ট হয়। যেমন নটে, লাল, পালং, মেথি ও মুলো শাক। এছাড়া ফুলকপি, বাঁধাকপি, ব্রকোলি, সজনে পাতা, ডাঁটা, আলু, খড় ছাতু (মাশরুম) প্রভৃতি। আবার কতকগুলি শাকসব্জি কাঁচা খাওয়া যায়, রান্না করেও খাওয়া যায়। উদাহরণ হিসেবে বিট, মুলো, গাজর, টম্যাটো, রাঙা আলু, শসা, ধনে পাতা, পুদিনা পাতা, কারি পাতা, লেটুস-এর কথা বলা যায়। এই ধরনের সব্জিতেও ভালো মানে ভিটামিন সি থাকে।

 কাঁচা আমলকীতে প্রচুর ভিটামিন সি থাকে। কাঁচা খেলে সবচেয়ে বেশি লাভ। এমনকী কাঁচা আমলকী কেটে তাতে নুন মিশিয়ে সঙ্গে সঙ্গে খেলেও ভিটামিন সি নষ্ট হয় না। তবে রোদে শুকিয়ে খেলে বেশিরভাগটা নষ্ট হয়।

আরও পড়ুন:  কীভাবে বুঝবেন আপনার আদরের সন্তান যৌন হয়রানির শিকার?

 কাঁচা ও পাকা তেঁতুল রান্না না করে খেলে ভিটামিন সি পাওয়া যায়। বার্লি ও ছোলাতেও থাকে ভিটামিন সি। ছোলা ভিজিয়ে পাঁচ থেকে ছয় ঘণ্টা পরে ছোলাভেজানো জল ও ছোলা একসঙ্গে খেলে সবচেয়ে বেশি উপকার মেলে।

 কতকগুলি মশলা ও রান্নার উপকরণেও ভিটামিন সি থাকে। কাঁচালঙ্কা, পেঁয়াজ, রসুন, আদা, হলুদ প্রভৃতি কাঁচা খেলে ভিটামিন সি পুরোটা পাওয়া যায়। এছাড়া জিরে মৌরি, কালো জিরে, মেথি, রাঁধুনি, গোলমরিচ, ছোট এলাচ, জায়ফল, জয়ত্রীতেও ভালো পরিমাণে ভিটামিন সি থাকে।

অতএব লেবুজাতীয় ফল খেয়ে ইমিউনিটি বাড়াবেন বলে ভাবছেন, অথচ লেবু পাচ্ছেন না, এমন হলে ঘাবড়াবেন না বিন্দুমাত্র!

তথ্যসূত্রঃ দৈনিক বর্তমান

বাংলা হেলথ কেয়ার /এসপি