বাংলাদেশ করোনামুক্ত হবে সেপ্টেম্বরেই!

বাংলাদেশ করোনামুক্ত হবে সেপ্টেম্বরেই!
পড়া যাবে: < 1 minute

বাংলাদেশ করোনামুক্ত হবে সেপ্টেম্বরেই!
ওমেন্স কর্নার ডেস্ক
জুলাই ১৩, ২০২০

সর্বশেষ বিজ্ঞানভিত্তিক গবেষণাগুলো থেকে দেখা যাচ্ছে যে, বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। যদিও কম পরীক্ষা হচ্ছে তারপরেও দেখা যাচ্ছে যে, প্রতিদিন বাংলাদেশে ২০ থেকে ২২ শতাংশের মধ্যে করোনা আক্রান্তের হার ঘোরাফেরা করছে এবং এটা স্থিতিশীল। গত জুন মাস থেকে এখন পর্যন্ত একই হারে সংক্রমণ হচ্ছে এবং সংক্রমণের হারের কোন উলম্ফন দেখা যায়নি।

জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা যাচ্ছে যে, বাংলাদেশের করোনা সংক্রমণের হার এখন নিম্নমুখী। নিম্নমুখী হওয়ার কারণ হিসেবে তাঁরা যেটা বলছেন যে, সংক্রমণের হার স্থিতিশীল থাকা মানে হলো করোনা সংক্রমণ আর বাড়ছে না এবং সামনে কমবে। তবে এই ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং কিছু অনুশাসন মেনে চলার দিকে গুরুত্ব দিয়েছেন। করোনা মোকাবেলায় বিশেষজ্ঞরা একটি সুনির্দিষ্ট পদ্ধতির কথা বলছেন। তা হলো- সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং সংক্রমিত ব্যক্তিকে আইসোলেশনে নেওয়া।সেটা যদি আমরা এখন থেকেই করতে থাকি তাহলে বাংলাদেশে আগামী কিছুদিনের মধ্যে করোনা পরিস্থিতি কমতে থাকবে।

আরও পড়ুন:  পাকা আমের জেলি তৈরির রেসিপি 

বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করতে গিয়ে আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা বলছেন যে, আমাদের রিপ্রডাকশন রেট অর্থাৎ একজনের মাধ্যমে অন্যজনের সংক্রমিত হওয়ার হার কমে যাচ্ছে। অনেকেই হয়তো মৃদ্যু উপসর্গ নিয়ে সুস্থ হয়েছেন। ফলে তাঁর শরীরে এন্টিবডি সৃষ্টি হয়ে গেছে এবং তিনি আর সংক্রমণ ছড়াচ্ছে না। এরকম বাস্তবতায় বাংলাদেশের সামাজিক সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার যে হার তা কমে এসেছে বলেও মনে করছেন অনেকে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে, আমরা যদি আরো কিছুদিন অর্থাৎ আগামী ১ মাস যদি এই সামাজিক দুরত্ব, সীমিত আকারে অফিস আদালতে এবং কঠোর আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি তাহলে করোনা সংক্রমণের যে চূড়া সেখান থেকে নামতে শুরু করবো এবং বাংলাদেশ সেপ্টেম্বর নাগাদ করোনা সংক্রমণের একটি সহনীয় পর্যায়ে আসতে পারে।

আরও পড়ুন:  অঙ্কিতা ও সুশান্তের বিচ্ছেদের পিছনে দায়ী কে? মুখ খুললেন কঙ্গনার দিদি রঙ্গোলি

বাংলা হেলথ কেয়ার /এসপি

  • 1
    Share