জেনে নিন ঘরোয়া উপায়ে দাঁত একদম সাদা ঝকঝকে করার টিপস

জেনে নিন ঘরোয়া উপায়ে দাঁত একদম সাদা ঝকঝকে করার টিপস
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

ঘরোয়া উপায়ে দাঁত একদম সাদা ঝকঝকে করার টিপস – একটা মানুষকে কখন সবথেকে বেশি সুন্দর লাগে জানেন? সে যখন হাসে। আর সেই হাসি যদি হয় সাদা ঝকঝকে, তাহলে তো আর কোন কথায় নেই। দাতে যদি কালো দাগ বা ছোপ থাকে তাহলে নিজেরই খারাপ লাগে। লোক সমাজে মন খুলে হাসতে লজ্জা লাগে। অন্যের কাছে নিজের সম্বন্ধে এই খারাপ ছাপ পড়ার আগে পরিস্কার করে ফেলুন আপনার দাঁতের
সমস্ত দাগ।দাঁত প্রতিদিন ব্রাশ করলেও কারোর কারোর দাঁতে হলুদ ছোপ পড়ে যায়। আর তার সঙ্গে মুখে দুর্গন্ধ ছড়ায়। মানুষের সঙ্গে কথা বলতে ইতস্তত বোধ হয়। এটি থেকে দূর হতে আপনাকে একটা ঘরোয়া পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে।এই পদ্ধতি ব্যবহারে আপনার দাঁত যেমন

আরও পড়ুন:  আয়না দিয়ে ঘর সাজাতে দেখে নিন কয়েকটি চমৎকার আইডিয়া

চকচক করবে তার সাথে সাথে মুখের দুর্গন্ধ দূর হবে। আপনার মাড়ির কোন সমস্যা থাকলে তা থেকেও মুক্তি পাবেন। সেই পদ্ধতিটি কি তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক। এর জন্য দরকার কিছু সাধারন উপাদান। টুথপেস্ট, বেকিং সোডা, লবণ, লেবুর রস ও কফি। এবার প্রথমে একটি
ছোট পাত্রে পরিমান মত টুথপেস্ট নিন। তারপর এর সাথে অর্ধেক চামচ বেকিং সোডা নিন, এর উপর অল্প লবণ দিন। তারপর এরসাথে অর্ধেক চামচ পাতি লেবুর রস দিয়ে সব জিনিস ভালো করে মিশিয়ে নিন। ভালো ভাবে মিশ্রণটি বানিয়ে নিন। মিশ্রণটি বানানো হয়ে গেলে
সেটিকে ব্রাশে করে নিয়ে দাঁত মাজুন। এটি একবার ব্যবহারে আপনি চোখে পড়ার মত পার্থক্য লক্ষ করতে পারবেন। জিরো ফিগারের মারাত্নক ক্ষতিকর দিকগুলো! জিরো ফিগার আসলে মাকাল ফল। হালকা ছিপছিপে গড়নের মেয়েরা দেখতে আকর্ষণীয় হলেও, তারা নানাবিধ স্বাস্থ্য
ঝুকিতে থাকেন। অপরদিকে কোন মেয়ে একটু মোটু হইলেই তার হাজারটা দোষ। জিমের ছাঁচে ফেলে নিজের তুলতুলে শরীরটাকে, দুই লিটারের কোকের বোতল বানাবার জন্য উঠে পড়ে লাগে। প্রত্যেকের শরীরের নিজস্ব সৌন্দর্য আছে, স্বাভাবিকভাবেই কেউ পাতলা, কেউ মোটু, কেউ মাঝারি গোছের অথচ জিরো ফিগার কিংবা স্লিম ফিগার না হলে মেয়েটা সুন্দর না, এমন একটা ফালতু ধারণা সবার মনেই ঢুকে গেছে।
৫০০০+ মজদার রেসিপির জন্য Google Play store থেকে Install করুন “Bangla Recipes” মোবাইল app…. 🙂.মোবাইল app Download Link >>> https://bit.ly/2YsK4MO

আরও পড়ুন:  হালকা নাস্তায় তৈরি করুন সুস্বাদু বকফুলের পাকোড়া

বাংলা হেলথ কেয়ার /এসপি