প্রচ্ছদ খাদ্য ও পুষ্টি

কাঁচা পেঁপে খাওয়া ভালো, না খারাপ?

116
কাঁচা পেঁপে খাওয়া ভালো, না খারাপ
Loading...

পাকা পেঁপে অনেকেই বেশ মজা করে খেলেও কাঁচা পেঁপের নাম শুনলে নাক কুঁচকে ফেলেন। কাঁচা পেঁপে তরকারীতে দিলে অনেকেই তা খেতে চান না। এমনকি কাঁচা পেঁপের তৈরি কোনো খাবারও অনেকে খান না।

স্বাদের দিক থেকে কাঁচা পেঁপে তেমন সুস্বাদু না হলেও এই কাঁচা পেঁপের রয়েছে অসাধারণ সব পুষ্টিগুণ।পেঁপে পেকে যাওয়ার পর এর অনেক স্বাস্থ্যকর এনজাইম কমে যায়। কিন্তু কাঁচা পেঁপেতে বিদ্যমান এইসব এনজাইম আমাদের দেহের জন্য অনেক ভালো।

রান্নায় ভিন্নতা এনে স্বাদের কমতিটুকু পূরণ করে নিয়ে খেতে পারেন অসাধারণ স্বাস্থ্যগুণ সম্পন্ন কাঁচা পেঁপে। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক কাঁচা পেঁপের পুষ্টিগুণ গুলো।

হৃদপিণ্ডের সুরক্ষায়

কাঁচা পেঁপে আমামদের দেহের সঠিক রক্ত সরবরাহে কাজ করে। আমাদের দেহে জমা থাকা সোডিয়াম দূর করতে সহায়তা করে যা হৃদপিণ্ডের রোগের জন্য দায়ী। নিয়মিত পেঁপে খেলে উচ্চ রক্ত চাপের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এতে করে হৃদপিণ্ড জনিত যে কোনো সমস্যার সমাধান হয়।

ওজন কমায় ও ফ্যাট দূর করে

কাঁচা পেঁপেতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ই, এ এবং ফোলাইট। ১০০ গ্রাম কাঁচা পেঁপেতে রয়েছে মাত্র ৩৯ ক্যালোরি। তাই যারা ডায়েট কএন তাদের জন্য খাদ্যতালিকায় কাঁচা পেঁপে রাখা জরুরী। এছাড়া কাঁচা পেঁপের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট দেহের ক্ষতিকর ফ্যাট দূর করতে বিশেষ ভাবে কার্যকরী। তাই সালাদ, কিংবা তরকারীতে রাখতে পারেন কাঁচা পেঁপে। এই গরমে কাঁচা পেঁপের জুস আপনার শরীরকে ঠাণ্ডা রাখার সাথে সাথে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী করে তুলবে।

দ্রুত ক্ষত নিরাময় ত্বকের সমস্যা সমাধান করে

প্রতিদিন কাঁচা পেঁপে খেলে দেহের যে কোনো ক্ষত এবং কাটাছেড়া দ্রুত নিরময় হয়। কাঁচা পেঁপের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান ক্ষতের ইনফেকশন হওয়া থেকে মুক্তি দেয়। কাঁচা পেঁপে ত্বকের জন্যও বেশ ভালো একটি খাদ্যউপাদান। বেশিরভাগ ভালো ত্বকের প্রোডাক্টে কাঁচা পেঁপের ব্যবহার হয়ে থাকে। কাঁচা পেঁপে ত্বকের ব্রণ ও নানান ধরণের চামড়ার রোগ থেকে আমাদের রক্ষা করে। প্রতিদিন কাঁচা পেঁপে বাটা ত্বকে লাগালে ত্বক হয়ে উঠে উজ্জ্বল ও মসৃণ।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে

কাঁচা পেঁপে কোষ্ঠকাঠিন্যের মহৌষধ হিসেবে কাজ করে। কাঁচা পেঁপে এবং কাঁচা পেঁপের বীচির মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি অ্যামোবিক এবং অ্যান্টি প্যারাসিটিক উপাদান যা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যার সমাধান করতে সক্ষম। এছাড়াও হজমের সমস্যা, বুক জ্বালাপোড়া, গ্যাসের সমস্যা, পেটে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যা সমাধানেও কাঁচা পেঁপের জুড়ি নেই।

মেয়েদের মাসিকের ব্যথার সমস্যা নিরাময় করে

অনেক মেয়েই মাসিকের ব্যথা সমস্যায় ভুগে থাকেন। প্রচণ্ড ব্যথা সহ্য করতে হয় অনেককে। কিন্তু এই সমস্যার সমাধানে কাঁচা পেঁপে ও পেঁপে পাতার জুড়ি নেই। ২ কাপ পানিতে কাচা পেঁপে এবং পাতা, সামান্য হলুদ এবং লবণ ফুটিয়ে পান করলে মাসিকের ব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

Loading...
Loading Facebook Comments ...