প্রচ্ছদ Countrywide

এবার ঈদের ৭দিনে চলাচলের নিষেধাজ্ঞায় যুক্ত হলো নতুন যানবাহন, জানা গেল কারন

18

আগামী ১০ জুলাই দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ঈদের আগে মোটরসাইকেল চালকদের জন্য আরেকটি দুঃসংবাদ এলো। এবার ঈদের আগের তিন দিন, ঈদের তিন দিন এবং ঈদের তিন দিনসহ মোট সাত দিন এক জেলা থেকে অন্য জেলায় মোটরসাইকেল চলাচল করতে দেওয়া হবে না। এছাড়া মহাসড়কে রাইড শেয়ারিং সার্ভিসও বন্ধ থাকবে।

বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) একটি জরুরি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে যে বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) থেকে এক জেলায় নিবন্ধিত মোটরসাইকেলগুলিকে অন্য জেলায় চালানোর অনুমতি দেওয়া হবে না ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের চলাচলের সুবিধার্থে, একই সঙ্গে মোটরসাইকেল শেয়ারিংয়ের মাধ্যমে যাত্রী বহন করাও যাবে না। বুধবার (৬ জুলাই) দুপুরে মোটরসাইকেল চলাচল সীমিত বা বন্ধের বিষয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, ঈদুল আজহা উপলক্ষে যাত্রীদের চলাচলের সুবিধার্থে ঈদের আগের তিন দিন এবং ঈদের পরের তিন দিন পর অর্থাৎ জুলাই থেকে তিন দিন মহাসড়কে যাত্রী বহন করা যাবে না। ৭ থেকে ১৩ জুলাই। এক জেলায় নিবন্ধিত মোটরসাইকেল অন্য জেলায় চালানো যাবে না। যৌক্তিক ও অনিবার্য প্রয়োজনে এক জেলা থেকে অন্য জেলায় মোটরসাইকেল নিয়ে যেতে হলে হাইওয়ে বা সংশ্লিষ্ট এলাকার জেলা পুলিশের অনুমতি নিতে হবে।

একই সঙ্গে মহাসড়কে ট্রাক, লরি ও কাভার্ড ভ্যান চলাচল বন্ধ থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য, খাদ্যসামগ্রী, পচনশীল পণ্য, পোশাক, ওষুধ, সার, কাঁচা চামড়া। পশু ট্রাক এবং জ্বালানী যানবাহন ছাড় দেওয়া হবে। বিআরটিএ এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলেছে, পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।

উল্লেখ্য, রোববার দুপুরে সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী মোটরসাইকেলের বিষয়ে নেওয়া এই বিশেষ সিদ্ধান্তের তথ্য জানান। তিনি বলেন, চলতি মাসের ৭ থেকে ১৩ জুলাই পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। সড়ক পরিবহন সচিব বলেন, যৌক্তিক কারণ ছাড়া ঈদের তিন দিন আগে, ঈদের তিন দিন এবং ঈদের তিন দিন পর- এই সাত দিন মোটরসাইকেল এক জেলা থেকে অন্য জেলায় যেতে দেবে না। দেশের সব মহাসড়কে একই সময়ে রাইড শেয়ারিং করা যাবে না।